Friday, July 12, 2024
More

    সর্বশেষ

    শক্তিশালী ফিচারের নতুন ওয়ালটনের ‘প্রিমো এনফোর’ বাজারে

    টেকভিশন ডেক্স: নজরকাড়া ডিজাইনের নতুন স্মার্টফোন বাজারে ছাড়লো দেশীয় প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন। বড় পর্দার ফোনটির মডেল ‘প্রিমো এনফোর’। ৩জিবি র‌্যাম ও ৩২জিবি রমের পর এবার ৪জিবি র‌্যাম ও ৬৪জিবি রমের আরেকটি ভার্সনে ফোনটি বাজারে এলো। পেছনে তিন ক্যামেরাযুক্ত সাশ্রয়ী মূল্যের ফোনটির দুর্দান্ত সব ফিচার স্মার্টফোনপ্রেমীদের অসাধারণ অভিজ্ঞতা দেবে।

    ওয়ালটন মোবাইল ফোনের হেড অব সেলস আসিফুর রহমান খান বলেন, ফোনটি পিএমএমএ ম্যাটেরিয়ালে তৈরি। এটি রেইনবো ব্ল্যাক এবং সি গ্রিন দুটি ভিন্ন রঙে বাজারে ছাড়া হয়েছে। রেইনবো ব্ল্যাক রঙের ফোনটির ব্যাককভার আলোতে রঙধনুর মতো বিভিন্ন রঙ ধারণ করে। যা ফোনটিকে করে তুলেছে আরো মনোমুগ্ধকর। এছাড়া সাধারণ প্লাস্টিক ম্যাটেরিয়াল থেকে এই ফোনে অনেক কম স্ক্র্যাচ পড়ে।

    তিনি জানান, ৪জিবি র‌্যাম ও ৬৪জিবি রমের নতুন ভার্সনটি পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ১৩,১৯৯ টাকায়। আর ৩জিবি র‌্যাম ও ৩২জিবি রমের ভার্সনটির দাম ১১,৬৯৯ টাকা। অনলাইনের ই-প্লাজা ( https://bit.ly/primoN4 ) থেকে কিনলে ৬ শতাংশ মূল্যছাড় মিলবে। ফলে ফোনটির দাম পড়বে যথাক্রমে ১২,৪৯৭ এবং ১০,৯৯৭ টাকা। এই মুহূর্তে এটিকে বাজারের সেরা বাজেট ফোন বলা যায়।


    ‘এনফোর’ মডেলের এই স্মার্টফোনে ব্যবহৃত হয়েছে ৬.৫ ইঞ্চির ইন-সেল এইচডি প্লাস ১৯:৯ রেশিওর নচ আইপিএস ডিসপ্লে। পর্দার রেজ্যুলেশন ১৬০০ বাই ৭২০ পিক্সেল। রয়েছে ২.৫ডি কার্ভড গ্লাসও। ফলে বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার এবং ভিডিও দেখা, গেম খেলা, বই পড়া বা ইন্টারনেট ব্রাউজিং হবে আরো প্রাণবন্ত।

    অ্যান্ড্রয়েড ৯.০ পাই অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত ফোনটির উ”চগতি নিশ্চিত করতে রয়েছে ২.০ গিগাহার্জ গতির অক্টাকোর এআরএম কোর্টেক্স-এ৫৩ প্রসেসর। উন্নতমানের গেমিং ও স্পষ্ট ভিডিওর অভিজ্ঞতা দিতে গ্রাফিক্স হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে মালি-জি৭১ এমপি২। বিভিন্ন অ্যাপস ব্যবহার, ইন্টারনেট ব্রাউজিং, থ্রিডি গেমিং এবং দ্রুত ভিডিও লোড ও ল্যাগ-ফ্রি ভিডিও স্ট্রিমিং সুবিধা দিতে রয়েছে ৩ অথবা ৪ জিবির দ্রুতগতির এলপিডিডিআর৪এক্স র‌্যাম। আছে ৩২ কিংবা ৬৪ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ মেমোরি। যা মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে আরো ৬৪ গিগাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। ফলে অনেক বেশি ছবি, ভিডিও, ডকুমেন্টস ইত্যাদি সংরক্ষণ করা যাবে।

    এই স্মার্টফোনের পেছনে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশযুক্ত ১৬, ৮ এবং ২ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল অটোফোকাস ক্যামেরা। এফ ১.৮ অ্যাপারচার সমৃদ্ধ এই ক্যামেরায় ব্যবহৃত হয়েছে পিডিএএফ প্রযুক্তি। ১/৩.১ ইঞ্চি সেন্সরের ৫পি লেন্স সমৃদ্ধ ১৬ মেগাপিক্সেলের প্রধান কামেরায় ছবি হবে নিখুঁত উজ্জ্বল ও রঙিন। ৬পি লেন্স সমৃদ্ধ ৮ মেগাপিক্সেলের সেকেন্ডারি ক্যামেরা দেবে ১২০ ডিগ্রি ওয়াইড অ্যাঙ্গেলে ছবি তোলার সুবিধা। আর ২ মেগাপিক্সেলের তৃতীয় ক্যামেরা নিশ্চিত করবে ছবি ডেফথ অব ফিল্ড।

    দুর্দান্ত সেলফির জন্য এই ফোনের সামনে আছে পিডিএএফ প্রযুক্তির ১৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। এফ ২.২ অ্যাপারচার সমৃদ্ধ এই ক্যামেরায় ব্যবহৃত হয়েছে ৫পি লেন্স। উভয় পাশের ক্যামেরায় ফুল এইচডি ভিডিও ধারণ করা যাবে। রয়েছে পিকচার ইন পিকচার সুবিধা।

    ক্যামেরায় নরমাল মোড ছাড়াও রয়েছে প্রো মোড, এআই ফেস বিউটি, ফেস ডিটেকশন, ডিজিটাল জুম, সেলফ টাইমার, অটো-ফোকাস, টাচ-ফোকাস, টাচ-শট, এইচডিআর, টাইম ল্যাপস, স্লো মোশন, প্যানোরমা, স্মার্ট সিন, নাইট মোড, ওয়াইড শট, বোকেহ, বিএসআই, স্মাইল শট, পোরট্রেইড মোড, ফিংগারপ্রিন্ট ক্যাপচার, জিও ট্যাগিং, কার্ড স্ক্যানার, জিফ, ওয়াটারমার্কসহ অসংখ্য আকর্ষণীয় ফিচার।

    স্মার্টফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি। যা দেবে দীর্ঘক্ষণ পাওয়ার ব্যাকআপ।

    ডুয়াল সিমের ফোরজি স্মার্টফোনটির সুরক্ষায় রয়েছে ফেস আনলক এবং ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর। কানেক্টিভিটির জন্য আছে ডুয়াল ব্যান্ড ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ভার্সন ৪, ইউএসবি ২, ওয়্যারলেস ডিসপ্লে, ল্যান হটস্পট, ওটিএ ও ওটিজি সুবিধা। এছাড়া অনলাইন থিমস, অ্যামবিয়েন্ট ডিসপ্লে, স্মার্ট কন্ট্রোলসহ ফোনটি অসংখ্য আকর্ষণীয় ফিচারে সমৃদ্ধ।
    বাংলাদেশে তৈরি এই স্মার্টফোনে রয়েছে বিশেষ রিপ্লেসমেন্ট সুবিধা। স্মার্টফোন কেনার ৩০ দিনের মধ্যে ত্রুটি ধরা পড়লে ফোনটি পাল্টে ক্রেতাকে নতুন আরেকটি ফোন দেয়া হবে। এছাড়াও, ১০১ দিনে প্রায়োরিটি বেসিসে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে ক্রেতা বিক্রয়োত্তর সেবা পাবেন। তাছাড়া, স্মার্টফোনে এক বছরের এবং ব্যাটারি ও চার্জারে ছয় মাসের বিক্রয়োত্তর সেবা তো থাকছেই।

    সর্বশেষ

    পড়েছেন তো?

    Stay in touch

    To be updated with all the latest news, offers and special announcements.