Monday, May 20, 2024
More

    সর্বশেষ

    প্রাইম ব্যাংক এর আর্থিক সহায়তা পাবে বাক্কোর সদস্যরা

    টেকভিশন ডেক্স: দেশের বিপিও/আউটসোর্সিং শিল্পে একমাত্র কেন্দ্রীয় ব্যবসায়িক সংগঠন হিসেবে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্কো) প্রধানমন্ত্রীর রূপকল্প-২০২১ বাস্তবায়নে মুখ্য ভূমিকা পালনকারী এক অগ্রজ সৈনিক ।

    শুরু থেকেই করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় সরকারের গৃহীত সকল উদ্যোগের সাথে একাত্মতা পোষণ করে কাজ করে যাচ্ছে বাক্কো । বর্তমানে দেশের বিপিও শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে ব্যাংক থেকে বিভিন্ন সুবিধা পাওয়া, এই খাতের প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য খুবই জরুরী । কেননা, এই সময়ে দেশের বেশিরভাগ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সরকারি নির্দেশে বন্ধ থাকলেও জরুরি সেবার আওতায় থাকা বিপিও প্রতিষ্ঠানগুলো সারা বাংলাদেশে বিরামহীন ২৪ ঘন্টা কল সেন্টার সেবা, জরুরী গ্রাহক সেবা এবং ব্যাক অফিসের মত সেবাসমূহ নিশ্চিতকরণে নিরলসভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছে ।

    আর তাই বাক্কোর সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার লক্ষ্যে এবং বিপিও খাতের উদ্যোক্তাদের অর্থায়নসহ যাবতীয় ব্যাংকিং সেবা প্রদানের লক্ষ্যে প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড এবং বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্কো) এর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে । ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ০৮ জুলাই, ২০২০ তারিখে ‘প্রাইম ব্যাংক-বাক্কো অ্যালায়েন্স’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনটির আয়োজন করা হয় । এই অনুষ্ঠানে প্রাইম ব্যাংকের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন প্রাইম ব্যাংক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রাহেল আহমেদ, প্রাইম ব্যাংকের এমএসএমই ব্যাংকিং বিভাগের প্রধান সৈয়দ এম ওমর তৈয়ব এবং ব্র্যান্ড অ্যান্ড কমিউনিকেশন্স বিভাগের প্রধান নাজমুল করিম চৌধুরী । অনুষ্ঠানটিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রী এম. এ. মান্নান,এমপি । তিনি প্রাইম ব্যাংক এবং বাক্কো এর মধ্যকার এই নতুন অ্যালায়েন্স এর জন্য শুভকামনা জানিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, “আমাদের বর্তমান সরকার পরিবর্তন চায়, সেজন্য সকল খাতের পাইওনিয়ার এবং নেতাদের এগিয়ে আসতে হবে । সরকারের সবগুলো মন্ত্রণালয় থেকেই আইসিটি খাতের উন্নয়নে নীতিমালা এবং অন্যান্য বিষয়ে সাহায্য করা হবে” ।

    সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে দেশের সম্ভাবনাময় তথ্য ও প্রযুক্তি খাতের দ্রুত সম্প্রসারণের লক্ষ্যে বাক্কো ও প্রাইম ব্যাংকের উদ্যোগে গঠিত এই সহজ অর্থায়ন সুবিধা বিপিও/আউটসোর্সিং কোম্পানিগুলোকে সহায়তা করবে । এ চুক্তি মোতাবেক বাক্কোর সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলো প্রাইম ব্যাংক থেকে জামানতবিহীন সর্বোচ্চ ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত লোন এবং অন্যান্য বিশেষায়িত ফাইন্যান্সিং সার্ভিস পাবে । এর ফলে বিপিও/আউটসোর্সিং খাত আরও প্রবৃদ্ধির দিকে এগিয়ে যেতে পারবে ।

    তাছাড়াও বিপিও প্রতিষ্ঠানগুলো ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল (সিসি, ওডি ও ডিমান্ড লোন), ফিক্সড অ্যাসেট ক্রয় ও ক্যাপিটাল এক্সপেন্ডিচারের জন্য টার্ম লোন, ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড সল্যুশন (এলসি, এলএটিআর, আইডিবিপি), ব্যাংক গ্যারান্টি, ওয়ার্ক অর্ডার ইত্যাদি অর্থায়ন সুবিধা পাবে । ডিপোজিট সুবিধা ও ই-ট্রানজেকশনের জন্য ইন্টারনেট ব্যাংকিং-অ্যালটিচুড-সার্ভিস পাবে। তবে লোনের জন্য দুই বছরের ব্যবসার অভিজ্ঞতা ও বাক্কোর সুপারিশ পত্রের প্রয়োজন হবে । ইতোমধ্যে, প্রাইম ব্যাংক রিলেশনশিপ ম্যানেজার নিয়োগ করেছেন, যাতে বাক্কো সদস্যবৃন্দ অফিস/বাড়িতে বসেই লোনের আবেদনসহ যাবতীয় ব্যাংকিং সেবা গ্রহণ করতে পারে ।

    এই পার্টনারশিপ সম্বন্ধে প্রাইম ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও নির্বাহী কর্মকর্তা রাহেল আহমেদ বলেন, “ সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ ভিশন বাস্তবায়ন এবং বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করার অগ্রযাত্রাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে প্রাইম ব্যাংক একাত্ম হয়ে কাজ করছে । বিপিও/আউটসোর্সিং শিল্পের ব্যাপক সম্ভাবনা । কেননা উন্নত দেশগুলো বিপিও/আউটসোর্সিং সার্ভিসের জন্য বাইরের অন্য দেশের উপর নির্ভর করছে । আমরা বিশ্বাস করি এই ঋণ সুবিধার ফলে বিপিও/আউটসোর্সিং কোম্পানিগুলো ব্যবসা সম্প্রসারণ করতে পারবে এবং মার্কেট শেয়ার আরও বাড়াতে পারবে । এই প্রসারমান খাতের অগ্রযাত্রায় সাথে থাকতে প্রাইম ব্যাংক প্রতিশ্রুতিবদ্ধ”।

    এই ধরনের অ্যালায়েন্স এর জন্য প্রাইম ব্যাংককে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বাক্কো সভাপতি ওয়াহিদ শরীফ বলেন, “বাক্কো সবসময়ই সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোর সুযোগসুবিধা বৃদ্ধিতে কাজ করে আসছে এবং ভবিষ্যতে এইরকম আরও কিছু কার্যক্রম গ্রহনের মাধ্যমে বিপিও শিল্পের উন্নয়নে কাজ করে যাবে ” । পাশাপাশি তিনি অন্যান্য ব্যাংকগুলোকেও আহ্বান জানান যেন তারা এই সম্ভাবনাময় বিপিও শিল্পের অগ্রযাত্রায় এগিয়ে আসেন । উক্ত অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাক্কো ডিরেক্টর রাশেদ নোমান এবং বাক্কো এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মোঃ আবুল খায়ের । মোঃ আবুল খায়ের সবাইকে ধন্যবাদ জানান এবং তার সমাপনী বক্তব্যের পর অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয় । 

    সর্বশেষ

    পড়েছেন তো?

    Stay in touch

    To be updated with all the latest news, offers and special announcements.