Tuesday, March 5, 2024
More

    সর্বশেষ

    চালু হলো দেশের প্রথম ক্রাউডফান্ডিং ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ‘একদেশ’

    যাকাত কিংবা আর্থিক অনুদান যেকোন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে সহজে প্রদানের লক্ষ্যে চালু হয়েছে দেশের প্রথম ক্রাউন্ডফান্ডিং ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ‘একদেশ’। ১৫ মে অনলাইন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এই প্ল্যাটফর্মের উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যুক্ত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক এসডিজি বিষয়ক প্রধান সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদ। অনলাইন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম এবং ‘একদেশ’ এর প্রেক্ষাপট ও কার্যক্রম বিষয়ে উপস্থাপনা প্রদান করেন এটুআই’র ডিজিটাল ফিনান্সিয়্যাল সার্ভিস বিষয়ক প্রোগ্রাম ম্যানেজার তহুরুল হাসান।

    করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্থ দরিদ্র মানুষ ও ক্ষুদ্র ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসমূহকে আর্থিক সহায়তার জন্য ডিজিটাল প্রযুক্তি নির্ভর ‘একদেশ’ প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল ও ইসলামিক ফাউন্ডেশনসহ বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সারাদেশের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ যাকাত কিংবা ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র আর্থিক অনুদান প্রদান করতে পারবেন। আর্থিক অনুদান একদেশ ওয়েবসাইটে https://ekdesh.ekpay.gov.bd/ প্রবেশ করে অথবা ‘একদেশ’ অ্যাপের মাধ্যমেও প্রদান করা যাবে। আইসিটি এটুআই ক্রাউডফান্ডিং মডেলের এই ‘একদেশ’ নামক ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মটি তৈরি করেছেন। এটি বিদ্যমান পেমেন্ট পদ্ধতি সহজিকরণে তৈরিকৃত ‘একপে’ প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে যুক্ত। এই প্ল্যাটফর্মে যে কেউ তাঁর সামান্য আর্থিক সহযোগিতা কিংবা যাকাত পছন্দনীয় যেকোন সরকারি-বেসরকারি প্ল্যাটফর্মে যেকোন ব্যাংকিং চ্যানেলের সহযোগিতায় প্রদান করতে পারবেন। পছন্দের প্রতিষ্ঠানটি সুনির্দিষ্ট প্রক্রিয়ায় এই সাহায্য পৌঁছে দিবে অসহায় মানুষের কাছে। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, ব্র্যাক, বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন, সেন্টার ফর যাকাত ম্যানেজমেন্ট, সিআরপি, সাজেদা ফাউন্ডেশন উক্ত প্ল্যাটফর্মের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে। এ কার্যক্রমে যুক্ত থাকবে জরুরি খাদ্য সহায়তা বা ত্রাণ বিতরণ, চিকিৎসা সেবা, স্বাস্থ্য সুরক্ষার উপকরণ, নগদ অর্থ সহায়তা, ভাসমান ও দুস্থ মানুষের পূনর্বাসনসহ সুবিধাবঞ্চিতদের সহযোগিতা করা।

    আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, একদেশ প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে দাতা এবং গ্রহীতার মধ্যে একটি সেতুবন্ধন তৈরি করবে। সারাদেশের মানুষের যাকাত এবং আর্থিক অনুদানের এই সেতুবন্ধন তৈরির মাধ্যমে সুষ্ঠ বন্টনের পথে এগিয়ে যাবো আমরা। এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে প্রত্যেকে তাঁর যাকাত বা অনুদান ঠিক যেখানে প্রদান করতে চান সেখানেই প্রদান করতে পারবেন। এই সেতুবন্ধনকে করোনা পরবর্তীতে সরকারি-বেসরকারি যৌথ উদ্যোগের বিভিন্ন বিনিয়োগ ক্ষেত্রেও কাজে লাগানোর পরামর্শ প্রদান করেন। সরকার ইতোমধ্যে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলায় 5 কোটির বেশি মানুষকে খাদ্য সহায়তা এবং নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করেছে।

    অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে এটুআই’র প্রকল্প পরিচালক ড. মো. আবদুল মান্নান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ, এটুআই’র পলিসি অ্যাডভাইজর আনীর চৌধুরী, ব্র্যাকের নির্বাহি পরিচালক আসিফ সালেহ, সাজেদা ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহি কর্মকর্তা জাহিদা ফিজা কবির, বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা শরিফুল ইসলাম, ব্যাংক এশিয়ার প্রেসিডেন্ট আরফান আলী, বিদ্যানন্দের প্রতিষ্ঠাতা কিশোর কুমার দাশ, সিআরপির নির্বাহি পরিচালক শফিকুল ইসলাম, শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতি উপজেলার ডোনার নাজিমুদ্দিন প্রমুখ।  

    সর্বশেষ

    পড়েছেন তো?

    Stay in touch

    To be updated with all the latest news, offers and special announcements.